পথের পথিক -blog


...


 


আজ পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করতে হবে।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম দশ রাত্রির কসম।’ আজ পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করতে হবে। যদি চাঁদ দেখা যায়, তবে আজ বাদ মাগরিব থেকেই পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস শুরু হয়ে



পবিত্র কুরবানীর পশুর হাট নিয়ে জটিলতা বাড়াচ্ছে কারা?


পবিত্র কুরবানীর পশুর হাটগুলোকে ঢাকা শহরের প্রান্তে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অর্থাৎ ঢাকা শহরের উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব কিংবা পশ্চিম প্রান্তের কোনো এক হাট থেকে কুরবানীর পশু কিনে শহরের অভ্যন্তরে নিয়ে আসতে হবে। কিন্তু ঢাকা শহরটা একেবারে এমন ছোট শহর নয়। কমপক্ষে ২০০



যে ব্যক্তি যামানার ইমাম উনাকে চিনলো না তার মৃত্যু হবে জাহিলিয়াত যুগের ন্যায়


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি হিজরী শতকের শুরুতে একজন মুজাদ্দিদ প্রেরণ করেন যিনি পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার সংস্কার করে থাকেন।” সুবহানাল্লাহ! ঠিক তদ্রƒপ বর্তমান যামানার মুজাদ্দিদ হলেন আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া



সুমহান ও বরকতময় ১৪ই শাওওয়াল শরীফ। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সিবত্বতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত বিনতু


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শন সম্বলিত দিবসগুলিকে স্মরণ করিয়ে দিন সমস্ত কায়িনাতবাসীকে। নিশ্চয়ই এর মধ্যে ধৈর্যশীল ও শোকরগোজার বান্দা-বান্দী উনাদের জন্য ইবরত ও নছীহত রয়েছে। সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান ও বরকতময় ১৪ই শাওওয়াল শরীফ। সুবহানাল্লাহ!



সফট ড্রিংকস বা কোমল পানীয়র নামে স্লো-পয়জন?


কোকাকোলা, পেপসিসহ বাজারে প্রচলিত বিভিন্ন কোমল পানীয়ের মধ্যে যে এলকোহলসহ বিভিন্ন ক্ষতিকারক বা বিষাক্ত উপাদান রয়েছে এ বিষয়ে দৈনিক আল ইহসান শরীফ ও মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ উনার মধ্যে অনেক আগে থেকেই জনসচেতনতামূলক লেখালেখি হয়েছে এবং হচ্ছে। এখন দেরিতে হলেও বিভিন্ন



আবার লকডাউন আবারও মানুষের জীবন-জীবিকার উপর আঘাত; সরকারের এ ঘোষণায় যে কোটি কোটি মানুষ খাদ্যের অভাবে ভুগছে, তাদের দায়


বাংলাদেশের কোটি কোটি মানুষ যারা দিন আনে দিন খায়। হয়তো এদের কারও কারও হাতে ১-২ দিনের বাড়তি খাবারের টাকা থাকে। এরপর তাদের কাজ না থাকলে, আয় না থাকলে এদের না খাবার পালা। কিন্তু যতই লকডাউন আর বিধি-নিষেধ আসুক সরকারী আমলা-কামলারা কি



নিজের ভুল-ত্রুটির জন্য শরীয়ত নিয়ে মিথ্যাচার কেন?


অনেকেই ইনিয়ে-বিনিয়ে নানা রকম অজুহাত তুলে ও যামানার দোহাই দিয়ে শরীয়ত নিষিদ্ধ বিষয়কে জায়িয বা হালাল করতে চায়। তারা তাদের এ আকাঙ্খা বাস্তবায়িত করতে গিয়ে মিথ্যাচারও করে থাকে। পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ সম্পর্কে মিথ্যাচার করে থাকে। নাউযুবিল্লাহ! আখিরী



শুধুমাত্র করোনার অজুহাতে নয় বরং কোন অজুহাতেই তারাবীহ নামাজ ২০ রাকাতের কম করা যাবে না


গত বছরের ন্যায় এবারো ইহুদী মদদপুষ্ট সৌদী ওহাবী মৌলভী গং ফতোয়া দিয়েছে, কথিত করোনার সংক্রমন রোধ করতে আসন্ন পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাসে হারামাইন শরীফে মসজিদসমূহে পবিত্র তারাবীহ নামাজ ১০ রাকায়াত পড়তে হবে। নাউজুবিল্লাহ মিন জালিক। সৌদী ওহাবী মৌলভীদের উপরোক্ত সিদ্ধান্ত বহুদিক



ইতিহাস থেকে বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকারের শিক্ষা গ্রহণ করা উচিত: মুসলিম শাসকদের প্রতি উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের বিশ্বাসঘাতকতা শুধু ১৭৫৭ সালের পলাশীর


ভারতবর্ষে ব্রিটিশ কর্তৃক মুসলিম নির্যাতনের মূলে ছিল উগ্র সাম্প্রদায়িক হিন্দুত্ববাদীরা। মুসলিম শসকগোষ্ঠী হিন্দুত্ববাদীদের বিশ্বাস করে বড় বড় পদে বসিয়েছিল; কিন্তু বিনিময়ে পেয়েছিলেন বিশ্বাসঘাতকতার নির্মম প্রতিদান। নবাব সিরাজউদ্দোলা থেকে শুরু করে ১৯৪৭ সাল পর্যন্ত উগ্র সাম্প্রদায়িক হিন্দুত্ববাদীদের ইতিহাস বিশ্বাসঘাতকতার ইতিহাস, মুসলমানদের প্রতারিত



এক নজরে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন, ইবনাতু আবীহা, উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আর রবি‘য়াহ্ আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত পরিচিতি


ইবনাতু আবীহা, উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আর রবি‘য়াহ আলাইহাস সালাম তিনি হচ্ছেন হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মধ্যে বিশেষ ব্যক্তিত্বা মুবারক। সুবহানাল্লাহ! তিনি শুধু যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি নন এবং নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু



সংবিধান অনুযায়ীই সরকার বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন কিছুতেই করতে পারে না


‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন’-এ বলা হয়েছে বাল্যবিবাহ যারা করবেন, সেই বিয়ে যারা পরিচালনা করবেন অথবা তা আয়োজনে সম্পৃক্ত থাকবেন, তারা সবাই দ-ের আওতায় পড়বেন। নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক! এই আইন মুসলিম এই দেশে ইসলামের প্রতি প্রকাশ্য বিরোধিতা করা শুধু নয়, সংবিধানের ধারার সাথেও



বাংলাদেশে পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করতে হবে আগামী ২৯শে জুমাদাল উখরা শরীফ ১৪৪২ হিজরী


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- “(হে হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) তাদেরকে (বান্দা-বান্দীদেরকে) মহান আল্লাহ পাক উনার বিশেষ বিশেষ দিন মুবারক ও রাত মুবারকগুলো স্মরণ করিয়ে দিন। (যাতে তারা সেসব দিন ও রাত্রগুলো উদযাপন বা পালন করতে পারে।)” সুবহানাল্লাহ!