সিয়াম-সাজিদ -blog


...


 


ভেবে চিন্তে আইন প্রণয়ন করা উচিত


ওরা না জানে মহাপবিত্র কুরআন শরীফ ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ। আর না জানে নিজেদের ইতিহাস। মেয়েদের বালেগা বা প্রাপ্তা বয়স্ক হওয়ার ন্যূনতম বয়স হচ্ছে ৯ বছর। আর উর্ধ্বতম বয়স হচ্ছে ১৫ বছর। আর ছেলেদের বালেগ বা প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার সর্বোচ্চ সীমা



পবিত্র মি’রাজ শরীফ নিয়ে চু-চেরাকারীরা কি নামায অস্বীকারকার করবে?


পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ মাস বিদায়ের পথে। এই পবিত্র মাস উনার ২৭ তারিখ সংঘটিত হয় পবিত্র মি’রাজ শরীফ। পবিত্র আরশে আজীমে দুই বন্ধু উনাদের মহামিলন। সুবহানাল্লাহ! পবিত্র মি’রাজ শরীফ শ্রেষ্ঠ নবী-রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি শ্রেষ্ঠ নিয়ামত মুবারক। আর



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাদিস মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু ওয়া সালাম উনার সম্মানিত খুছুছিয়ত মুবারক


তিনি মুস্তাজাবুদ দাওয়াত: সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাদিস মিন আহলি বইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মুস্তাজাবুদ দাওয়াত। উনার প্রতিটি দোয়া বা আরজু কবুল করা হতো তাই উনাকে মুস্তাজাবুদ দাওয়াত বলা হয়। তিনি যখন যা দোয়া মুবারক করতেন তখন তাই কবুল



রঊফুর রহীম, হারীছুন আলাল মু’মিনীন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি


لَقَدْ جَآءَكُمْ رَسُوْلٌ مِّنْ أَنْفُسِكُمْ عَزِيْزٌ عَلَيْهِ مَا عَنِتُّمْ حَرِيْصٌ عَلَيْكُمْ بِالْمُؤْمِنِيْنَ رَءُوْفٌ رَّحِيْمٌ অর্থ: মহাসম্মানিত রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি তোমাদের মাঝে তাশরীফ মুবারক গ্রহণ করেছেন। তোমাদের জন্য কষ্টকর বিষয়গুলো উনার নিকট অসহনীয়। তিনি তোমাদের ভালাই চান। বিশেষ করে



সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি আলাল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, বিনতু রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছানিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত


সংক্ষিপ্ত পরিচিতি মুবারক: বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছানিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সবচেয়ে বড় পরিচয় মুবারক, তিনি হচ্ছেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত লখতে জিগার মুবারক, মহাসম্মানিতা বানাত (মেয়ে) আলাইহাস



খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার পথে দান ছদকা করলে তা বহু গুনে বৃদ্ধি পায়


খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক এবং উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের রিযামন্দি সন্তুষ্টি মুবারক লাভের অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার রাস্তায় দান ছদকা করা। ইবাদতসমূহ উনার মধ্যে অন্যতম



হারাম-হালাল মিশ্রণকারী নামধারী মুসলমানের জন্য ভয়াবহ পরিণতি


সম্মানিত দ্বীন ইসলাম যারা পালন করেন উনারা মুসলমান। মূলত যিনি খলিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার তরফ থেকে উনার মহাসম্মানিত হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন ইমামুল মুরসালীন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি পবিত্র ওহী মারফত নাযিলকৃত,



ঈমানদার-মুসলমানদের জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি ও হাঁচি, কাশি হওয়া খাছ সুন্নত উনার অন্তর্ভুক্ত


জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি নিয়ে অপপ্রচার ও গুজবে সতর্ক হোন ঈমানদার-মুসলমানদের জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি ও হাঁচি, কাশি হওয়া খাছ সুন্নত উনার অন্তর্ভুক্ত জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি, কাশি হলেই করোনা নয়। জ্বর, ঠাণ্ডা, সর্দি, হাঁচি ও কাশি হওয়া খাছ সুন্নত উনার



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুহব্বত মুবারক প্রকাশ সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ


সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ ছিদ্দিক্বা আলাইহাস সালাম উনার সম্পর্কে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে- عن انس رضى الله تعالى عنه قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم احب النساء الى حضرت عائشة عليها السلام ومن الرجال



দোয়া কবুলের বিশেষ রাত পবিত্র লাইলাতুল বরাত


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- ان الدعاء يستجاب فى خمس ليال اول ليلة من رجب وليلة النصف من شعبان وليلة القدر المباركة وليلتا العيدين অর্থ: “নিশ্চয়ই পাঁচ রাত্রি মুবারকে দোয়া নিশ্চিতভাবে কবুল হয়ে থাকে। (১) রজব মাস উনার



মহান আল্লাহ পাক উনাকে এবং উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম


মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা হচ্ছেন মহান আল্লাহ পাক উনাকে এবং উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অর্থাৎ উনাদেরকে হাছিল করার একমাত্র উসীলা বা মাধ্যম, উনারা ব্যতীত



সিলেবাসে মুসলিম ব্যক্তিত্বগণের জীবন ও ইতিহাস অন্তর্ভুক্ত করতে হবে


শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশের শিক্ষানীতিতে বা সিলেবাসে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিশেষ ব্যক্তিত্বগণ উনাদের জীবনী মুবারক আলোচিত হবে, পঠিত হবে- এটাই স্বাভাবিক। কোনো বিধর্মী বা অমুসলিমদের জীবন-ইতিহাস কোমলমতি মুসলিম ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষার্থীদের পাঠ্যপুস্তকে থাকতে পারে না। মুসলিম ব্যক্তিত্বগণ উনাদের মধ্যে