Archive for the ‘ইসলাম ও জীবন’ Category

হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের আগমন এবং বিদায় উভয় দিনই উম্মতের জন্য ঈদের দিন


অনেকে বলে থাকে- নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যেদিন আগমন করেছেন আবার সেই দিন বিদায়ও নিয়েছেন। তাই আমরা কি করে এ দিন খুশি প্রকাশ করতে পারি। মূলত, তারা না জানার কারণে তা বলে থাকে। পবিত্র হাদীছ

হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মধ্যেই রয়েছেন তোমাদের জন্য উত্তম আদর্শ মুবারক


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মধ্যেই রয়েছেন তোমাদের জন্য উত্তম আদর্শ মুবারক।’ সুবহানাল্লাহ! মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাবীব, নূরে মুজাস্সাম হাবীবুল্লাহ

সুমহান বেমেছাল ফযীলতপূর্ণ মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ১১ই জুমাদাল ঊলা শরীফ। সুবহানাল্লাহ! সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস। সুবহানাল্লাহ!


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শন সম্বলিত দিবসগুলিকে স্মরণ করিয়ে দিন সমস্ত কায়িনাতকে। নিশ্চয়ই এর মধ্যে ধৈর্যশীল ও শোকরগোজার বান্দা-বান্দী উনাদের জন্য ইবরত ও নছীহত রয়েছে।’ সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান বেমেছাল ফযীলতপূর্ণ মহাসম্মানিত

যে বা যারা সম্মানিত শরীয়ত উনার খিলাফ কাজ করে, তাদেরকে অনুসরণ করা জায়িয নেই, তারা অনুসরণের অযোগ্য


আমরা প্রত্যেকেই কাউকে না কাউকে অনুসরণ করে থাকি। তবে বাজার দরে সবাইকে অনুসরণ করা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম, সম্মানিত শরীয়ত উনার সম্পূর্ণ খিলাফ ও গুনাহের কাজও বটে। কেননা মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সম্মানিত কালাম পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক

মৃত্যু যেহেতু আছেই, তবে প্রকৃত ঈমানদার হয়েই মৃত্যুবরণ করুন


মৃত্যু যে শ্বাশত সত্য- এটা মহান আল্লাহ পাক তিনিও পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক করেছেন। এ সম্পর্কে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মাঝে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- “প্রত্যেক নফসকে, প্রত্যেক মানুষকে তথা জিন-ইনসানসহ সমস্ত মাখলুকাতকে মৃত্যুবরণ করতে হবে।” (পবিত্র সূরা আল

দুনিয়ায় যা কিছু দেয়া হয়েছে সবকিছু মানুষের পরীক্ষার জন্য দেয়া হয়েছে।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘প্রত্যেক নফসকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।” আর হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “মৃত্যু তোমাদেরকে এমনভাবে তালাশ করে যেভাবে রিযিক তোমাদেরকে তালাশ করে।” মানুষ মরণশীল। প্রত্যেকের এক দিন না একদিন সবকিছু ত্যাগ

যারা মসজিদে চেয়ারে নামায পড়ছেন তারা ভেবে দেখেছেন কি?


এখন দেখা যায় প্রতিটা মসজিদে চেয়ারে নামাজ পড়ার হিড়িক পড়ে গেছে। সব মসজিদেই ২০/৩০ টা বা তারও বেশি চেয়ার দেখা যায়। চেয়ারে নামাজ পড়া নিয়ে কয়েকটা প্রশ্ন চলে আসে- ১) আমরা জানি নামাজে ক্বিয়াম বা দাঁড়ানো হচ্ছে ফরয (বাহরুর রায়েক ১/২৯০,

আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার বেমেছাল মহানুভবতা


সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার পবিত্র খিলাফতকাল। তখন ইরানের একটি প্রদেশের শাসক ছিলেন হযরত হরমুজান রহমতুল্লাহি আলাইহি (তিনি তখনো পবিত্র দ্বীন ইসলাম গ্রহণ করেননি)। দ্বীন ইসলাম গ্রহণের পূর্বে হযরত হরমুজান রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি একদিকে যেমন অত্যাচারী, অপরদিকে ঘোর ইসলাম

যারা কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত হবে না, তারা গুমরাহ বা পথভ্রষ্ট


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যে ব্যক্তি গোমরাহীর মধ্যে দৃঢ় থাকে, কোনো ওলীয়ে মুর্শিদ (কামিল শায়েখ) তার নছীব হয় না।” (পবিত্র সূরা কাহফ্ শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ১৭) পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ

সন্তানের উপর পিতা-মাতার হক্ব


প্রতিটি মানুষের উপর দুইটি দায়িত্ব অপরিহার্য। প্রথমটি হলো মহান আল্লাহ পাক উনার হক্ব আদায় করা। আর মহান আল্লাহ পাক উনার হক্ব আদায় করার অর্থ হচ্ছে, মহান আল্লাহ পাক তিনি যা আদেশ মুবারক করেছেন তা মেনে চলা এবং যে বিষয় থেকে নিষেধ

নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত ও তায়াল্লুক মুবারক নিয়ামত লাভের একমাত্র উসীলা


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে- قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ رَزَقَهُ اللهُ حُبَّ الْاَئِمَّةِ مِنْ أَهْلِ بَيْتِـيْ فَقَدْ أَصَابَ خَيْـرَ الدُّنْيَا وَالْاٰخِرَةُ فَلَا يَشَكَّنَّ أَحَدٌ أَنَّه فِـي الْـجَنَّةِ فَإِنَّ فِي حُبِّ اهْلِ بَيْتِـيْ عِشْرِيْنَ خَصْلَةً عَشْرٌ

পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে দোজখে বেপর্দা-বেগানা নারীদের শাস্তির বর্ণনা


সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “মেয়েরা হচ্ছে শয়তানের ফাঁদ।” (শিহাব) হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি বর্ণনা করেন, একদা আমি এবং খাতুনে জান্নাত হযরত আন নূরুর রবি’য়াহ যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি