Archive for the ‘স্মৃতিকথা’ Category

মুসলমান কি ভুলে গেছেন নিজেদের ইতিহাস?


যে ভারত বর্ষে – মাত্র ১৭ বছর বয়সে মুহাম্মদ বিন কাসিম রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি খলীফা আল ওয়ালিদের আমলে ভারতের সিন্ধুতে অভিযান পরিচালনা করে ভারতের ক্ষমতাধর অত্যাচারী, লুণ্ঠনকারী শাসক রাজা দাহিরকে শোচনীয়ভাবে পরাজিত ও নিহত করেন। যে ভারতবর্ষে- আফগান শাসক সুলতান মাহমুদ

সম্মানিত দ্বীন ইসলামই নারী জাতিকে দিয়েছেন একমাত্র সম্মান ও মর্যাদা


নারী ঘটিত বিভিন্ন ফিতনায় জর্জরিত ৯৮ ভাগ মুসলমানদের এই দেশ, প্রতিনিয়ত নারীটিজিং হতে শুরু করে এসিড নিক্ষেপ, সম্ভ্রমহরণ, এমনকি হত্যা পর্যন্ত করা হচ্ছে এই দেশের নারীদেরকে। কিন্তু কেন? এই বিষয়টি কি জানা আছে? মূলত তাহলো- পবিত্র দ্বীন ইসলাম যেভাবে নারীদের সম্মান

বঙ্গকন্যা!! আপনি কি ভারতের অঙ্গরাজ্য সিকিমের লেন্দুপ দর্জিকে ভুলে গেছেন ?


বঙ্গ কন্যা আপনাকে বলছি !!!!!! আপনি কি ভারতের অঙ্গরাজ্য সিকিমের লেন্দুপ দর্জিকে ভুলে গেছেন ? ভারত লেন্দুপ দর্জিকে দিয়ে সিকিমে অরাজকতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। তারপর ভারতই ১৯৭৫ সালে বন্ধু সেজে সিকিম রাজার নিরাপত্তার জন্য সেনাবাহিনী প্রেরণ। ফলাফল স্বাধীন সিকিম বর্তমানে

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী !!৭৫ সালে আমেরিকার সিআইএ কিন্তু আপনার পিতা ও আপনার পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছিল


মাননীয় প্রধানমন্ত্রী !!!! ৭৫ সালে আমেরিকার সিআইএ কিন্তু আপনার পিতা ও আপনার পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছিল । এবার সেই “সিআইএ” কিন্তু “আইএস” এর ধূয়া তুলে আপনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার চিন্তা করছে । আপনি সতর্ক হোন !!! বাংলাদেশে বর্তমানে আপনার দল আওয়ামীলীগে ছদ্মবেশে

আমরা মুসলিম বিজ্ঞানী।


আমরা মুসলিম সর্বসেরা জ্ঞানে-গুণে বেমেছাল শানে ভরপুর বিজ্ঞান মোদের কুরআনী ধন আমাদের হাতেই প্রকাশিত নূর। রসায়ন-ভূগোলের ধারণা দিলাম প্রাণী-উদ্ভিদ জ্ঞানের দ্বার খুললাম মুসলিম উনাদের জ্ঞানই “বিজ্ঞান” অজানাকে জানালাম মুসলিম উমাম। আঁধারের ঘেরাটোপ ডিঙিয়ে শেষে মুসলিম এনে দেন ইলাহী দেশে চুরি-ডাকাতি করে

পবিত্র মিলাদ শরীফ পাঠ করায়, ভয়াবহ অগ্নিকান্ড থেকে বেচেঁ যাওয়ার দৃষ্টান্ত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক এবং উনার হযরত ফেরেশতা আলাইহিমুস সালাম উনারা আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শান মুবারকে পবিত্র ছলাত শরীফ পড়েন। হে ঈমানদারগণ! আপনারাও উনার শান

রাস্তার পাশে দাঁড়ানো কুকুরদের ঘেউ ঘেউ আওয়াজ শুনে দাঁড়িয়ে গেলে আপনি পথ চলতে পারবেন না।


রাস্তার পাশে দাঁড়ানো কুকুরদের ঘেউ ঘেউ আওয়াজ শুনে দাঁড়িয়ে গেলে আপনি পথ চলতে পারবেন না। ওদেরকে তাড়াতে গেলে কিছুটা পিছে হটে আবারও ঘেউ ঘেউ করবে। আপনার সময় ও শ্রম দুটো ই বৃথা যাবে। তাই ওটাকে গুরুত্ব না দিয়ে আপনার পথে আপনি

‘মা’দের প্রতি সাইয়্যিদুনা ইমামুস সাদিস আলাইহিস সালাম উনার উপদেশ- ‘শিশুদের যেন মায়ের বামপাশে শোয়ানো হয়’


পবিত্র ইলমে লাদুন্নীর মাধ্যমে প্রাপ্ত উনার এই উপদেশ মুবারক উনার অন্তর্নিহিত কারণ যথাযথভাবে কেউ সে সময় উপলব্ধি করতে পারেনি। এমনকি ইউরোপের তথাকথিত রেনেসাঁর সময়কালীন সময়েও উনার এই উপদেশ মুবারক উনার মর্মার্থ উপলব্ধির অনেক চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু উনার এই বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব

সুলতানুল হিন্দ হযরত গরীবে নেওয়াজ রহমুতাল্লাহি আলাইহি উনার উসীলায় এক কোটির ও অধিক মানুষ পবিত্র ঈমান লাভ করে৤


৬ই রজব ৭ম হিজরী শতকের মুজা্দ্দিদ সুনলত্বানুল হিন্দ, গরীবে নেওয়াজ, হাবীবুল্লাহ হযরত খাজা ছাহিব রহমুতাল্লাহি আলাইহি উনার পবিত্র বিছালী শান তথা উনার দুনিয়া থেকে বিধায় নেওয়ার দিন মুবারক৤ কাজেই এই দিনটি আমাদের জন্য অত্যান্ত রহমত পুর্ন, বরকত পুর্ন ছাকিনা পুর্ন ৤

১লা বৈশাখ- ক্ষমতা কিংবা সক্ষমতা থাকলেই সব করা উচিত নয়


প্রসঙ্গ: ১লা বৈশাখ- ক্ষমতা কিংবা সক্ষমতা থাকলেই সব করা উচিত নয়   পিতা-মাতা সন্তানের মালিক হওয়ার পরও কোনো পিতা কিংবা মাতা যদি সন্তানকে হত্যা করে, তাহলে হত্যাকারীকে গ্রেফতার করা হয়, জেল-জরিমানা করা হয়, মৃতুদ-ও হতে পারে। পুলিশের কাঁধে রিভলভার থাকলেই মন

নিচে বসে খাবার খাওয়া সর্ম্পকে সম্মানিত ইসলাম ও বিজ্ঞান কি বলে দেখুন৤


একটা সময় এদেশের মানুষ পবিত্র সুন্নত উনার নিয়তে মাটিতে বসেই খাবার খেতেন।এখন বেশিরভাগ আধুনিকতার ধোহাই দিয়ে চেয়ার টেবিলে খাচ্ছে। অথচ আপনি জানেন কি, নিচে বসে খাওয়া সুন্নত মুবারকতো বটেই বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানও প্রমাণ করেছে নিচে বসে খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ভালো?

নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-তিনি সর্বত্র হাযির-নাযির


মূলতঃ আল্লাহ পাক-এর হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে যেহেতু সমগ্র কায়িনাত সৃষ্টির পূর্বেই সৃষ্টি করা হয়েছে। তাই তিনি সর্বকালে, সর্বযুগে, সর্বাবস্থায় হাযির-নাযির ছিলেন, আছেন, ক্বিয়ামত পর্যন্ত থাকবেন ও ক্বিয়ামতের পরে অনন্ত কাল থাকবেন। এ মর্মে ইরশাদে রব্বানী হচ্ছে- الم