পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনকারী উনাদেরকে স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনিই শাফায়াত মুবারক করবেন


পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনকারী উনাদেরকে স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনিই শাফায়াত মুবারক করবেনপরকালে মানুষের মুক্তিতে শাফায়াত বা সুপারিশ করবে কে? হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনারা ব্যতিত আর কেউ কি মানুষের জন্য সুপারিশ করতে পারবে? শাফায়াতের একচ্ছত্র 

সলমানদের অধিকার সংরক্ষণ করার ব্যাপারে সরকারকে অবশ্যই অত্যধিক তৎপর হতে হবে।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘দুনিয়াতে তুমি তোমার অধিকারকে ভূলে যেওনা।’ অর্থাৎ, দুনিয়ার যমীনে তোমাদের যাবতীয় অধিকারের ব্যাপারে তোমরা গাফিল থেকনা। নিজের অধিকার আদায়ে সদা সচেষ্ট থাকবে। বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার শতকরা ৯৮ ভাগই মুসলমান। তাই, সবক্ষেত্রেই পবিত্র দ্বীন ইসলাম 

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র ইলমে গইব উনার অধিকারী


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিত ইলমে গইব উনার অধিকারী। এতে বিন্দুমাত্র সন্দেহ নেই। কেননা সম্মানিত আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াত উনাদের আক্বায়িদ হচ্ছে- মহান আল্লাহ পাক তিনি হচ্ছেন আলিমুল গইব। আর মহান 

উন্নয়নের নামে মসজিদ সরিয়ে দেয়া একটি চক্রান্ত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা তোমাদের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে পাবে প্রথমতঃ ইহুদীদেরকে অতঃপর মুশরিকদেরকে।” (পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ৮২) শত্রুর কাজ কি? ছোবল দেয়া, সর্বনাশ করা, ঈমান নষ্ট করা, জীবন নাশ করা। এই 

চোর-ডাকাতও যেমন অপরাধী; ভাস্কর্য, স্ট্যাচু, ম্যানিকিনও তেমনি মূর্তি


যারা মানুষের মাল-সম্পদ লুণ্ঠন করে এমন অপরাধীদেরকে আমরা চোর, ডাকাত, ছিনতাইকারী বিভিন্ন নামে অবহিত করে থাকি। চোর, ডাকাত, ছিনতাইকারী এইসব অপরাধীদের নামের মধ্যে ভিন্নতা লক্ষণীয়। কিন্তু অনিস্বীকার্য সত্য যে, এই অপরাধমূলক কর্মকা- প্রতিটির অর্থ কিন্তু একই সেটা হচ্ছে মানুষের মাল-সম্পদ লুণ্ঠন। 

আধুনিকতা নাম দিয়ে হারাম ‘ছবি’ তোলা থেকে বিরত থাকুন


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার যামানায় ভিডিও, ক্যামেরা ছিলো না; কিন্তু সেই সময় চবি অঙ্কন করা হতো। ওগুলো থেকেই ইহুদী-খ্রিস্টান তারা মুসলমান উনাদের পবিত্র ঈমান-আক্বীদা ধ্বংস করার জন্যই মূলত এই ভিডিও ক্যামেরা তৈরি করেছে। ওই সময়ে 

সুন্নত মুবারক পালনকারীদেরকে ৪টি বিশেষ বৈশিষ্ট্য প্রদান করা হয়


যিনি খলিক যিনি মালিক যিনি রব মহান আল্লাহ পাক তিনি সর্বাবস্থায় নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অনুসরণ মুবারক করার আদেশ মুবারক করেছেন। আর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অনুসরণ মুবারক করার 

মুসলমানদের দমিয়ে রাখতেই ‘ধর্মনিরপেক্ষতার’ বুলি


কথিত ধর্মনিরপেক্ষতার ছায়ায় গড়ে উঠা হিন্দু নিয়ন্ত্রিতরাষ্ট্র ভারতে প্রায় ৪০% মুসলমানের অবস্থার সাথে মাত্র প্রায় ১.৫% বাংলাদেশী হিন্দুর সুযোগ-সুবিধার বিশ্লেষণ করলে আমরা নতুন কিছু ধ্যান-ধারণার সন্ধান পাই। মাত্র প্রায় ১.৫% হিন্দু এই হিন্দুদের দুর্গাপূজায় জাতীয় ছুটি, পূজাম-পের জন্য অনুদান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে দীর্ঘ 

নামায শুরুর আগে দেখে নিন- আশেপাশে প্রাণীর ছবি আছে কিনা


সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ্ ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম তিনি বর্ণনা করেন, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন হাদিয়া আশার আলাইহাস সালাম এবং সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল মু’মিনীন আস সাদিসাহ্ আলাইহাস সালাম উনারা উভয়ে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার 

সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার ভিত্তি হচ্ছেন সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা


জামিউল আহাদীছ, জামউল জাওয়ামি’, জামিউল কবীর, কানযুল উম্মাল ইত্যাদি কিতাবসমূহে বর্ণিত রয়েছে- ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত আলী র্কারামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি বর্ণনা করেন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্সাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম 

ছোঁয়াচে বা সংক্রামক রোগ বলে কোনো রোগ আছে বিশ্বাস করা সুস্পষ্ট শিরকের অন্তর্ভুক্ত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি শিরকের গুনাহ ক্ষমা করবেন না। এছাড়া সকল গুনাহ ক্ষমা করে দিবেন।’ সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে- ছোঁয়াচে বা সংক্রামক রোগ বলে কোনো রোগ আছে বিশ্বাস করা সুস্পষ্ট শিরকের অন্তর্ভুক্ত। 

বাল্যবিবাহের বিরোধিতাকারীরা পবিত্র আয়াত শরীফ অস্বীকারকারী


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে জিজ্ঞাসা করলেন, ঐ সমস্ত মহিলাদের ইদ্দতের ব্যাপারে আপনার কি ফায়ছালা যারা এখনও মাজূর হননি অর্থাৎ নাবালেগা রয়ে